থাইল্যান্ডে নৌকাডুবিতে অর্ধশতাধিক পর্যটকের মৃত্যু

0
Want create site? Find Free WordPress Themes and plugins.

থাইল্যান্ডের ফুকেটে পর্যটক নৌকাডুবিতে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছেন আরও অনেক পর্যটক। এ ঘটনায় ৩৩ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রবল ঝড়ের কবলে পড়ে পর্যটকবাহী নৌকাটি ডুবে যায় বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

গত ৫ জুলাই ঝড়ের কবলে ফিনিক্স পিসি ডাইভিং নৌকাটি ডুবে যাওয়ার পর শুক্রবার (৬ জুলাই) দুপুরে সর্বশেষ তথ্য জানায় থাই হার্বার ডিপার্টমেন্ট। নৌকাটিতে মোট ১০৫ জন আরোহী ছিলেন, যাদের মধ্যে ৯৩ জন পর্যটক ও ১২ জন ক্রু ছিলেন। উদ্ধার হয়েছেন ৪৯ জন।

পর্যটকদের বেশিরভাগই ছুটি কাটাতে আসা চীনের নাগরিক। থাই নৌবাহিনীর ফেসবুক পেইজে পোস্ট করা ছবিতে, কমলা রঙের লাইফ জ্যাকেট পরা উদ্ধারকৃত যাত্রীদের দেখা যায়।

ফুকেটের চ্যালং প্রাদেশিক পুলিশ স্টেশনের উপপ্রধান সোমসাক সোফাকাম জানান, উদ্ধারকারীরা এ পর্যন্ত ৪৮ জনকে উদ্ধার করে তীরে আনতে সক্ষম হয়েছেন।

দুর্ঘটনাস্থলের কয়েক মাইল দূরে সমুদ্র থেকে একজন নারী পর্যটককে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত যাত্রীদের মধ্যে ২৩ জনকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। খবর এএফপির।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে থাই নৌবাহিনী, মেরিন পুলিশ ও স্থানীয় জেলেরা উদ্ধার কাজে অংশ নেন। কিন্তু রাত গভীর হলে উদ্ধার কাজ স্থগিত করা হয়।

ফুকেট গভর্নর নোরাফাত প্লোথং জানান, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া ও উত্তাল সমুদ্রের জন্য উদ্ধারকার্য স্থগিত করা হয়েছিল। শুক্রবার সকাল থেকে হেলিকপ্টার, মাছ ধরার ট্রলার ও ডুবুরিরা নিখোঁজ পর্যটকদের সন্ধানে আবারও তৎপরতা শুরু করে।

এ ঘটনায় অন্তত একজন চীনা নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে বলে চীনা গণমাধ্যমে বলা হয়। সেই সঙ্গে ৫৩ জনের নিখোঁজ হওয়ার খবর প্রকাশ করে দেশটির সরকারি সংবাদমাধ্যম শিনহুয়া।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে জানাযায়, বুধবার (৪ জুলাই) থেকে প্রবল ঝড়ের সতর্কতা দেওয়া হলেও এই পর্যটকবাহী নৌকাটি ফুকেটের উপকূলে আন্দামান সাগরে চলে যায়। এরপর ঝড় শুরু হলে ১৬ ফুট উঁচু পর্যন্ত ঢেউ আছড়ে পড়ে উপকূলে।

Did you find apk for android? You can find new Free Android Games and apps.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.