৩৬ বিসিএসের ক্যাডার ঘোষণা করলেও গেজেট হচ্ছেনা এখনো

1
Want create site? Find Free WordPress Themes and plugins.

চাকরিপ্রত্যাশীদের কাছে স্বপ্নের আরেক নাম বিসিএস। সারাবছরই এটি আলোচিত থাকে কোন না কোন কার্যক্রমের জন্য। গত ১২ জুন ৩৭তমের চুড়ান্ত ফলাফল, আগামী ৩ আগস্ট ৩৯তম বিশেষ বিসিএসের প্রাক-বাছাই, ৮ আগস্ট থেকে ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা, ৪০তম বিসিএসের প্রজ্ঞাপনের সম্ভাব্য দিনক্ষণসহ নানা ইস্যু নিয়ে বিসিএস সবসময়ই আলোচনায় থাকে। প্রজ্ঞাপন, প্রাক-যাচাই, লিখিত, মৌখিক পরীক্ষার পর বাংলাদেশ সরকারী কর্মকমিশন বিপুল সংখ্যক প্রতিযোগী থেকে দেশে সবচেয়ে প্রার্থিত এই চাকরিতে সীমিতসংখ্যক প্রতিযোগীকে ক্যাডার পদে সুপারিশ করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করে। আর বাকিদের মধ্য থেকে আবেদনের ভিত্তিতে নন-ক্যাডার বিভিন্ন শ্রেণিতে সুপারিশ করে। ক্যাডার পদে সুপারিশকৃত দেশসেরা এ কর্মকর্তাবৃন্দকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরবর্তীতে বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে যাচাই বাছাই এবং স্বাস্থ্যপরীক্ষার যোগ্যপ্রার্থীদের নিয়োগ প্রদান করে এবং যোগদানের জন্য অভিন্ন তারিখ নির্ধারণ করে পদায়নের জন্য স্ব স্ব মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করে। এরপর মন্ত্রণলয়সমূহের কর্তৃক পদায়নকৃত বা নির্দেশিত দপ্তরে নবনিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ যোগদান করেন। কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য যে ৩৯ মাসেও সম্পন্ন হয়নি ৩৬তম বিসিএসের এসকল কার্যক্রম!!!

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, ৩১ মে ২০১৫ সালে ২১৮০ টি পদের জন্য ৩৬তম বিসিএসের প্রজ্ঞাপন জারি করে বিপিএসসি। এরপর ০৮ জানুয়ারি, ২০১৬ তারিখ প্রাক বাছাই, ১ সেপ্টেম্বর’১৬ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর’১৬
লিখিত পরীক্ষা এবং ১২ মার্চ ২০১৭ – ০৭ জুন ২০১৭ পর্যন্ত মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে ১৭ অক্টোবর ২০১৭ সালে ২৩২৩ জনকে চুড়ান্তভাবে বিভিন্ন ক্যাডারপদে সুপারিশ করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করে।

এরপর ০৩ মার্চ’১৮ থেকে ১৮ মার্চ’১৮ পর্যন্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং জানুয়ারি’১৮ থেকে মার্চ’১৮ জেলা পুলিশের বিশেষ বিভাগ, উপজেলা প্রশাসন, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থাসহ অন্যান্য যাচাই বাছাই চলে। কিন্তু অদ্যাবধি ৩৬তম বিসিএসে সুপারিশকৃত যোগ্যপ্রার্থীদের গেজেট হয় নি। একই বিসিএসের নন-ক্যাডার থেকে সমাজসেবা কর্মকর্তা পদে সুপারিশকৃত কর্মকর্তাগণের নিয়োগ দিয়ে গেজেট হয় ১৭ মে,২০১৮ তারিখ এবং তারা ২১ মে, ২০১৮ তারিখ স্ব স্ব দপ্তরে যোগদান করেছেন। সম্প্রতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে সুপারিশকৃতদের নিয়োগ প্রজ্ঞাপন হয় ৩ জুলাই, ২০১৮ তারিখ এবং তাদের ০৫ আগস্ট, ২০১৮ তারিখের মধ্যে যোগদান করতে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে। একই বিসিএসের মাধ্যমে সুপারিশকৃত ক্যাডার কর্মকর্তাদের নিয়োগ প্রজ্ঞাপন হওয়ার আগেই নন-ক্যাডারদের নিয়োগ ও যোগদান, পরবর্তী ব্যাচের চুড়ান্ত ফলাফল নজিরবিহীন।

এছাড়াও অনেককেই পূর্বের কর্মস্থলে চাকরি ছাড়ার তাগাদা দেওয়া হচ্ছে, আবার অনেকেই দ্রুত নিয়োগ ও যোগদান হবে এমন অনুমানে চাকরি ছেড়ে পারিবারিক, সামাজিক, আর্থিকসহ নানাভাবে বিব্রতকর অবস্থার সম্মুখীন হচ্ছেন। দেশসেরা চাকরি প্রাপ্তি আনন্দ ফিকে হয়ে তা এখন হতাশার প্রতিরূপ হয়েছে।

ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এনিয়ে হতাশা ব্যক্ত করতে দেখা যায়। অনেকেই বন্ধু-বান্ধব, আত্নীয়-স্বজনের গেজেট সংক্রান্ত প্রশ্নের বিব্রত হয়ে গেজেট হয়নি এমন তথ্যসংবলিত প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটো ব্যবহার করছেন। আবার একজন লিখেছেন প্রাক বাছাই পরীক্ষা দিয়ে বিয়ে করেছেন। তার সন্তান এখন নিজ পায়ে হেটে বেড়ায়, কিন্তু তিনি নিজে এখনও চাকরিতে যোগদান করতে পারেন নি।

পূর্ববর্তী বিসিএসগুলোর সাথে তুলনা করে দেখা যায় ২৮তম বিসিএসে ৩১ মাস, ২৯তম বিসিএসে ৩০ মাস, ৩০তম (বিশেষ) বিসিএসে ২৬ মাস, ৩১তম বিসিএসে ২৩ মাস, ৩২তম (বিশেষ) বিসিএসে ১৪ মাস, ৩৩তম বিসিএসে ২৯ মাস, ৩৪তম বিসিএসে ৪০ মাস (হাইকোর্টে রীটের কারণে স্থগিতাদেশ থাকায় প্রায় একবছর সকল কার্যক্রম স্থগিত ছিল), ৩৫তম বিসিএসে ৩৩ মাস। আর এদিকে ৩৬তম বিসিএসে ৩৮ মাস পেরিয়ে গিয়েছে।

চুড়ান্ত ফলাফলের পর নিয়োগ গেজেট প্রকাশের সময় হিসেব করলে ৩০তম বিসিএসে ১৯৮ দিন, ৩১তম বিসিএস ১৭৩ দিন, ৩২তম বিসিএস ২৭২ দিন, ৩৩তম বিসিএস ২৩২ দিন (রেকর্ড সাড়ে আট হাজার ক্যাডার নিয়োগ দেওয়া হয়!), ৩৪তম বিসিএস ২৬২ দিন, ৩৫তম বিসিএসে ২২৯ দিন। আর ৩৬তম বিসিএসের চুড়ান্ত ফলাফলের পর কেটে গিয়েছে ২৫৮ দিন(০৪.০৭.২০১৮ পর্যন্ত), অথচ এখনও নিয়োগ প্রজ্ঞাপন জারি হয় নি।

Did you find apk for android? You can find new Free Android Games and apps.

1 Comment

  1. Ajgor Hossai Rubel on

    ধন্যবাদ ন্যাশনাল নিউজ।
    ৩৬ পরিবারের পক্ষ থেকে।
    নিউজটাতে মন্ত্রী পরিষদ সচিব স্যার ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এর কার্যালয়ের সাক্ষাৎকার যুক্ত করলে আরো শক্ত অবস্থান হতো।
    তবুও আপনাদের প্রচেষ্টাকে ধন্যবাদ।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.