অপ্রিয় হলেও এটাই সত্য! একটু মানবিক হোন

0

সরওয়ার কামাল জামান: বিশ্বাস করুন আর নাই করুন, সরকারি ত্রাণ বন্টনের বাস্তব চিত্র এটি। সরকার মেট্রিকটন হিসেবে বরাদ্দ দিচ্ছে। তবে মন্ত্রণালয় হয়ে সেই ত্রাণ সংসদ সদস্যদের নিকট আসতে আসতে তা টন হয়ে যাচ্ছে। সংসদ সদস্য থেকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর আসতে আসতে তা মণ হয়ে যায়। চেয়ারম্যান থেকে মেম্বার পর্যন্ত আসতে তা কেজিতে পরিণত হয়। মেম্বার থেকে জনগণের নিকট তা পৌঁছায় পোয়া হিসেবে। আর জনগণের কাছ থেকে সরকারের কাছে যাচ্ছে গালি আর গালি!

ত্রাণ বঞ্চিত হাজার হাজার মানুষ নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করছেন, আবার অনেকেই ইউপি সদস্য কর্তৃক ত্রাণ বিতরণের তালিকাভুক্তিতে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ তুলেছেন । সাধারণ মানুষ বড়ই শঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। যখন তাদের বলা হচ্ছে আগামীর দিনগুলি বড়ই কষ্টকর হবে, তখন কেউ হাউমাউ করে কেঁদে দিচ্ছেন, আবার কেউ মাথায় হাত দিয়ে বসে যাচ্ছেন! এসব দৃশ্য দেখা গেছে অসহায় দরিদ্র মানুষগুলোর খবর নিতে গিয়ে।

সচেতন মহল মনে করছেন, ত্রাণ বিতরণের ক্ষেত্রে সৎ ও নিষ্ঠাবান দায়িত্বশীলদের হাতে এসব দায়িত্ব ছেড়ে দিলেই প্রকৃত অভাবী ও দরিদ্র ব্যক্তির নিকট ত্রাণ পৌঁছাবে। অন্যথায় ত্রাণের নামে সাধারণ মানুষের হয়রানি এবং জনদুর্ভোগ বাড়ানো ছাড়া আর কিছুই হবে না। কারণ ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বশীলদের অনেকের বিষয়ে দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।
সচেতন মহলের দাবি হলো, প্রকৃত দরিদ্রদের খুঁজে বের করে তাদের বাড়ি বাড়ি ত্রাণ পৌঁছে দিতে পারলেই সফল হওয়া যাবে। এই কাজে স্বেচ্ছাশ্রম দিতে হাজার হাজার তরুণ প্রস্তুত হয়েছে বলেও দাবি করছেন তারা।
আবার অনেকের মতামত হলো, কেবল দরিদ্র নয় মধ্যবিত্ত পরিবারেও সমানহারে ত্রাণ বিতরণ করা জরুরি। কারণ ধনীরা বিত্ত-বৈভবের মালিক, তাই তারা অনায়াসে সংসার চালাতে পারে। আর দরিদ্র ব্যক্তিরা সরকারি বেসরকারি অনুদান নিয়ে সংসার চালায় কিন্তু যারা মধ্যবিত্ত তাদের কেউ খবর রাখে না।
এক্ষেত্রে কওমি মাদ্রাসায় চাকরিজীবীদের কথাও অনেকেই উল্লেখ করেছেন। তারা বলছেন, কওমি মাদ্রাসা সাধারণত জনগণের অর্থে রিচালিত হয়। দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়াতে প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মচারীদের প্রাপ্য বেতন আদায় করে দিলেও দেশের হাজার হাজার কওমি মাদ্রাসার শিক্ষকরা কেউ বেতন পায়নি। বেশ ক’জন কওমি মাদ্রাসার শিক্ষকদের সাথে কথা বলে এই তথ্য নিশ্চিত করা গেছে।
সুতরাং দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ এর সাথে সাথে কওমি মাদ্রাসার শিক্ষকবৃন্দের পরিবারেও জরুরী ভিত্তিতে ত্রাণ বিতরণ করা জরুরি।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.