এফডিআই প্রবাহে চীনকে টপকাল ভারত

0

চলতি বছর ভারতে অন্তর্মুখী (ইনবাউন্ড) চুক্তির আর্থিক মূল্য ৩ হাজার ৮০০ কোটি ডলার ছাড়িয়েছে। একই সময় চীন ৩ হাজার ২০০ কোটি ডলার বিদেশী বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে পেরেছে। ফলে গত বিশ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম এফডিআই প্রবাহে চীনকে হটিয়ে উপরে উঠে এসেছে ভারত।

মূলত নীতিমালার স্থিতিশীলতা, দেউলিয়া আইন এবং উদীয়মান খাতগুলোতে নতুন নতুন সুযোগের সুবাদে ভারত অধিক বিদেশী বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে সক্ষম হয়েছে।
বৈশ্বিক এমঅ্যান্ডএ ও ক্যাপিটাল মার্কেটের তথ্য প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ডিলজিকের তথ্য অনুসারে, চলতি ক্যালেন্ডার বছরে ভারত সর্বোচ্চ ২৩৫টি প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ (এফডিআই) চুক্তি করেছে, যেগুলোর মোট মূল্য ৩ হাজার ৭৭৬ কোটি ডলার।

জেপি মরগান চেজ অ্যান্ড কোম্পানির দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার প্রধান নির্বাহী কল্পনা মোরপারিয়া বলেন, চলতি বছর একটি ব্যস্ত এমঅ্যান্ডএ বছর পার করল ভারত। ভবিষ্যতেও এমঅ্যান্ডএর ইতিবাচক ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আমরা আশা করছি।

ভারতে গোল্ডম্যান স্যাকসের চেয়ারম্যান সঞ্জয় চ্যাটার্জি বলেন, রাজ্য বা কেন্দ্রীয় নির্বাচন যা-ই হোক না কেন, রাজনৈতিক পরিবেশের স্বল্পমেয়াদি অনিশ্চয়তা সত্ত্বেও বৈশ্বিক বিনিয়োগকারীরা ভারতের প্রতি মনোযোগ ধরে রেখেছে। মূল্যস্ফীতি, রাজস্ব ঘাটতি বা প্রবৃদ্ধির মতো বৃহৎ মাপকাঠিগুলোর বিবেচনায় পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। তেলের উচ্চমূল্য ও মুদ্রার অবমূল্যায়নের কারণে চলতি হিসাব ঘাটতি বাড়লেও, এ দিকটিও স্থিতিশীল হবে বলে মনে হচ্ছে।

চলতি বছর ভারতে বেশকিছু বড় এমঅ্যান্ডএর ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে মার্কিন শীর্ষ খুচরা বিক্রেতা কোম্পানি ওয়ালমার্টের ১ হাজার ৬০০ কোটি ডলারে ভারতীয় ই-কমার্স কোম্পানি ফ্লিপকার্ট অধিগ্রহণ অন্যতম। আগামী দিনগুলোতেও ভারতের প্রযুক্তিনির্ভর খুচরা ও আর্থিক সেবা খাতে এমঅ্যান্ডএ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে ই-কমার্স নিয়ে ভারতের এফডিআই নীতির ওপরও এর ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে।

সূত্র- ইকোনমিক টাইমস

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.