করোনার থাবায় পৃথিবী ছেড়েছে ৩ লাখ ৭৭ হাজার মানুষ, আক্রান্ত ৬৩ লাখ ৬২ হাজার

0

বিশ্বের সাড়ে ১৮ লাখের বেশি মানুষের দেহে করোনা নামক ভাইরাসটি সংক্রমণ ছড়িয়েছে। এর মধ্যে পৃথিবী ছেড়েছে ৩ লাখ ৭৭ হাজারের বেশি মানুষ।

আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় সকাল পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনার শিকার এখন পর্যন্ত ৬৩ লাখ ৬২ হাজার ১৪৮ জন মানুষ। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১ লাখ ২ হাজার ৮৯৮ জন। নতুন করে প্রাণ গেছে ৩ হাজার ১৪ জনের। এ নিয়ে করোনারাঘাতে পৃথিবী ছেড়েছেন বিশ্বের ৩ লাখ ৭৭ হাজার ১৫২ জন মানুষ। আর সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ২৯ লাখের বেশি মানুষ।

এর মধ্যে শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই আক্রান্ত ১৮ লাখ ৫৯ লাখ ৩২৩ জন। প্রানহানি ঘটেছে ১ লাখ ৬ হাজার ৯২৫ জনের। যা করোনায় একক কোন দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যু।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংক্রমণের দেশ ব্রাজিলে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ২৯ হাজার ৪০৫ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে প্রাণ গেছে সেখানে ৭৩২ জনের। এ নিয়ে লাতিন আমেরিকার দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৩০ হাজার ৪৬ জনে ঠেকেছে।

আক্রান্তের তালিকায় তিনে থাকা রাশিয়ায় করোনার শিকার ৪ লাখ ১৪ হাজার ৮৭৮ জন। এর মধ্যে প্রাণ গেছে ৪ হাজার ৮৫৫ জনের।

ইউরোপ-আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য-দক্ষিণ এশিয়া আর সবশেষ তাণ্ডব ছড়িয়ে পড়েছে লাতিন আমেরিকায়। যেখানে ইতিমধ্যে অর্ধলাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

উৎপত্তিস্থল চীনসহ ইউরোপের কয়েকটি দেশ করোনার লাগাম টেনে ধরতে পারলেও ব্যর্থ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য সর্বোচ্চ আক্রান্তের দেশগুলো। এর মধ্যে সবচেয়ে নাজুক অবস্থা যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলে।

ভাল নেই দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোও। যার সবচেয়ে ভুক্তভোগী নরেন্দ্র মোদির ভারত। যেখানে আক্রান্ত ২ লাখ ছুঁই ছুঁই। সংক্রমণ তালিকায় শীর্ষ সাতে জায়গা হয়েছে দেশটির। প্রাণ গেছে সেখানে সাড়ে ৫ হাজার মানুষের।

সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশেও ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে করোনা ভাইরাস। যেখানে প্রতিদিনই রেকর্ড আক্রান্তে সংক্রমণ ৫০ হাজারের কাছাকাছি। এমন অবস্থার পরও খুলে দেয়া হয়েছে অফিস আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গণপরিবহন। এতে করে করোনার সংক্রমণ ব্যাপক বিস্তারের শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

নিয়ন্ত্রণে আসা স্পেনে আক্রান্ত ২ লাখ প্রায় ৮৬ হাজার ৭১৮। এর মধ্যে প্রাণহানি ঘটেছে ২৭ হাজার ১২৭ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে কোন প্রাণহানি ঘটেনি।

প্রাণহানিতে দ্বিতীয় স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে সংক্রমণ পৌনে ৩ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৩৯ হাজার ছাড়িয়েছে।

প্রাণহানি ৩৩ হাজার ৪৭৫ জনে দাঁড়িয়েছে ইতালিতে। যেখানে আক্রান্ত ২ লাখ ৩৩ হাজার ১৯৭ জন।

এরপরই দক্ষিণ এশিয়ার ভারত। দেশটিতে প্রতিদিনের রেকর্ড আক্রান্তে সংক্রমণ ২ লাখ ছুঁই ছুঁই। প্রাণ গেছে এখন পর্যন্ত ৫ হাজার ৬০৯ জনের। অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে ফ্রান্স, জার্মানি, তুরস্ক ও ইরানে।

আর বাংলাদেশে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেয়া তথ্যানুযায়ী গতকাল সোমবার পর্যন্ত করোনার শিকার ৪৯ হাজার ৫৩৪ জন। আক্রান্তদের মধ্যে প্রাণ গেছে ৬৭২ জনের। এর মধ্যে বেঁচে ফিরেছেন ১০ হাজার ৫৯৭ জন।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.