গাজার উত্তর, মধ্যাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় ইসরাইলরে বিমান হামলা

0

গাজার ঘনবসতিপূর্ণ বেসামরিক এলাকায় যুদ্ধবিমান থেকে হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরাইল বাহিনী। গত ২৪ ঘণ্টায় চালানো এসব হামলায় বেশ কয়েকজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আলজাজিরা জানিয়েছে, হামলায় রাফাহ শহরের দক্ষিণাঞ্চলে পরিকল্পিতভাবে আবাসিক ভবনগুলো ধ্বংস করে দিয়েছে ইসরাইল।

গাজা থেকে আল জাজিরার সংবাদদাতা জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় গাজার উত্তর, মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চলে ঘনবসতিপূর্ণ বেসামরিক এলাকায় ইসরায়েলের যুদ্ধবিমান ও কামান হামলায় কয়েক ডজন মানুষ নিহত হয়েছে। গাজার সিভিল ডিফেন্স বলছে, উপত্যকার উত্তরে বেইত লাহিয়ায় ইসরাইলের বোমাবর্ষণের পর যে পরিমাণ ধ্বংসযজ্ঞ চালানো হয়েছে তা ‘কল্পনাকেও হার মানায়’।

গাজার উত্তরাঞ্চলে একটি বাড়িতে বিমান হামলায় অন্তত ১৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। উদ্ধারকর্মীরা কয়েক ঘণ্টা ধরে ধ্বংসস্তূপে জীবিতদের খোঁজে তল্লাশি চালায়, আহতদের অধিকাংশই নারী ও শিশু। এ ছাড়া গাজা সিটির কেন্দ্রস্থলে একটি বাড়িতে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর হামলায় অন্তত দুইজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।গাজা সিটির সাবরা এলাকায় বাড়ির ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনো মানুষ নিখোঁজ রয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, গাজা সিটির সুজায়া এলাকায় হাসানাইন পরিবারের একটি বাড়িতে হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি সেনাবাহিনী। আট মাসেরও বেশি সময় ধরে ইসরাইলের অব্যাহত বিমান হামলা ও গোলাবর্ষণ গাজার স্বাস্থ্যসেবা অবকাঠামোকে ধ্বংসস্তূপে ফেলে রেখেছে। ইসরাইলের অব্যাহত হামলার বিষয়ে আল-আকসা হাসপাতালের স্বেচ্ছাসেবী এবং হাসপাতালের প্রযুক্তিবিদ খালেদ শাকশির বলেন, এটি অসহনীয়। গাজার দেইর আল-বালাহ শহরে অবস্থিত এই হাসপাতালের অ্যানেস্থেশিয়া মেশিনসহ বিভিন্ন সরঞ্জামগুলো ভেঙেচুরে গেছে।

গত ৭ অক্টোবর ইসরাইলের সীমান্তে প্রবেশ করে আকস্মিক হামলা চালায় হামাস। এরপরেই গাজায় পাল্টা আক্রমণ শুরু করে ইসরাইলি বাহিনী। সেখানে অভিযানের নামে গত ৮ মাসে কমপক্ষে ৩৭ হাজার ৭১৮ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও ৮৬ হাজার ৩৭৭ জন।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.