জিপি-রবির ব্যান্ডউইথ কমাতে নির্দেশ বিটিআরসির

0

পাওনা ১৩,৪৪৭ কোটি টাকা আদায় দেশের শীর্ষ দুই মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন (জিপি) ও রবি আজিয়াটার কাছ থেকে ১৩ হাজার ৪৪৭ কোটি টাকা পাওনা আদায়ে কড়া পদক্ষেপ নিল বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। সংস্থাটি আজ বৃহস্পতিবার ওই দুই অপারেটরের ব্যান্ডউইথ সীমিত করতে সরবরাহকারীদের নির্দেশ দিয়েছে।

এ পদক্ষেপের ফলে গ্রামীণফোন ও রবির ইন্টারনেট সেবাদানের সক্ষমতায় নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। বিটিআরসির হিসাব অনুযায়ী, মে মাস শেষে দেশে মুঠোফোন গ্রাহকের সংখ্যা ছিল ১৬ কোটির কিছু বেশি। এর মধ্যে গ্রামীণফোনের গ্রাহক প্রায় ৭ কোটি ৪৮ লাখ। আর রবির গ্রাহক ৪ কোটি ৭৭ লাখ।
বিটিআরসির দাবি অনুযায়ী, গ্রামীণফোনের কাছে পাওনা প্রায় ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা। আর রবির কাছে পাওনা প্রায় ৮৬৭ কোটি টাকা। নীরিক্ষা আপত্তি হিসেবে এ টাকা দাবি করে বিটিআরসি। অবশ্য দুই অপারেটরই এই পাওনা নিয়ে দ্বিমত পোষণ করে।

এর আগে একাধিকবার পাওনা আদায়ে দুই অপারেটরকে চিঠি দিয়েছে বিটিআরসি। গত এপ্রিল মাসে জাতীয় সংসদে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার এই পাওনার হিসাব তুলে ধরেন। ওই সময় তিনি চিঠি দেওয়ার কথাও জানান।
বিটিআরসি আজ লেভেল–৩ ক্যারিয়ার লিমিটেড, ম্যাঙ্গো টেলিসার্ভিসেস, সামিট কমিউনিকেশন, আমরা টেকনোলজি ও ফাইবার অ্যাট হোম গ্লোবালকে গ্রামীণফোন ও রবিকে ব্যান্ডউইথ সীমিত করার নির্দেশ দেয়। এতে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ব্যান্ডউইথ বাড়ানো যাবে না। বারবার তাগাদা দেওয়ার পরও গ্রামীণফোন ও রবি সরকারের এ পাওনা অর্থ দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করা হয় চিঠিতে।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.