দলকে জিতিয়েও ক্লপের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী ফিরমিনো

0

টটেনহ্যামের মাঠ থেকে ম্যাচের ৩৭ মিনিটে রর্বাতো ফিরমিনোর একমাত্র গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লিভারপুল। ব্যবধানের দিক থেকে অল রেডসদের এই জয়টা ছোট। কিন্তু গুরুত্বের দিক থেকে অনেক বড়। এই জয়ে লিভারপুল শিরোপা জয়ের কাছে আরও একধাপ এগিয়ে গেছে। গড়েছে রেকর্ড।

চলতি মৌসুমে লিগে ২১ ম্যাচ খেলে লিভারপুল জয় পেয়েছে ২০ ম্যাচে। বাকি ম্যাচটা সমতা করে মাঠ ছেড়েছে। ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে এমন দুর্দান্ত জয়ের রেকর্ড আর কোন দলের নেই। যেহেতু এমন জয়ের রেকর্ড নেই। তাই ২১ ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট পেয়েও ইউরোপের শীর্ষ লিগের মধ্যে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পাওয়ার রেকর্ড গড়েছে অল রেডসরা।

এছাড়া গত মৌসুমের ম্যাচ মিলিয়ে সর্বশেষ ৩৮ লিগ ম্যাচে অপরাজিত লিভারপুল। জয় তুলে নিয়েছে ৩৩ ম্যাচে। বাকি পাঁচ ম্যাচে সমতা নিয়ে মাঠ ছেড়েছে তারা। এই ম্যাচ থেকে মোট পেয়েছে ১০৪ পয়েন্ট। ২০১৮ মৌসুমে ম্যানসিটি এবং ২০০৫ মৌসুমে চেলসি সমান ম্যাচে ১০২ পয়েন্ট তুলেছিল।

দারুণ এই রেকর্ডগুলো হয়েছে ফিরমিনোর বাঁ-পায়ে নেওয়া শট জালে জড়ানোয়। কিন্তু তারপরও ম্যাচ শেষে ফিরমিনো কোচের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করেছেন। কারণ ফিরমিনো মনে করেন, ম্যাচে তার আরও গোল করা উচিত ছিল।

ম্যাচ শেষে লিভারপুল বস জার্গেন ক্লপ বলেন, ‘শেষ বাঁশি বাজার পর আমি ফিরমিনোকে জড়িয়ে ধরতে যায়। কিন্তু সে আমাকে থামিয়ে দিয়ে আগে কথা বলে আমার সঙ্গে। ফিরমিনো আমাকে বলে, তার আরও গোল করা উচিত ছিল। তবে আমি কিন্তু তাকে ওসব কিছু বলতে চাইনি।’

ক্লপ অবশ্য স্বীকার করেন ফিরমিনো সুযোগ নষ্ট করেছে। প্রথম পাওয়া সুযোগেই তাকে গোল করতে হতো। কিন্তু তিনি তার স্ট্রাইকারকে অবিশ্বাস্য ফুটবলার বলে প্রশংসাও করেন। জার্মান এই কোচ বলেন, ‘সে দারুণ এক ফুটবলার। এটা আমি আগেও বলেছি এবং আশা করছি শেষবার বলছি না।’ সাবেক বরুসিয়া ডর্টমুন্ড কোচের মতে, মরিনহোর দলের বিপক্ষে জয় পাওয়া সহজ ছিল না।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.