Wednesday, September 30

দীর্ঘ পাঁচ মাস পর আগামী ১৭ আগস্ট থেকে খুলে দেওয়া হচ্ছে বান্দরবানের সব পর্যটনকেন্দ্র

0

মহামারী করোনার কারণে বান্দরবানের বন্ধ থাকা পর্যটন কেন্দ্র দীর্ঘ পাঁচ মাস পর আগামী ১৭ আগস্ট থেকে পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে সকল হোটেল, মোটেল, রিসোর্টসহ সব পর্যটনকেন্দ্র। এ খবরে খুশি পর্যটনসংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, করোনার প্রভাবে গত কয়েক মাসে যে ক্ষতি হয়েছে, তা পুরোপুরি পুষিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়। তবে পর্যটনকেন্দ্রগুলো খুললে পর্যটকরাও বেড়াতে আসতে শুরু করবেন।

এতে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা অন্তত তাদের দৈনন্দিন খরচ মেটাতে পারবেন। একপর্যায়ে আবার চাঞ্চল্য ফিরে পাবে এখানকার পর্যটনশিল্প। বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন গতকাল রবিবার বলেন, কিছু শর্তসাপেক্ষে সীমিত পরিসরে আগামী ১৭ আগস্ট থেকে পর্যটকদের জন্য পর্যটনকেন্দ্রসহ জেলার সব হোটেল-মোটেল, গেস্ট হাউস খুলে দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যটকরা পর্যটনকেন্দ্রগুলো ভ্রমণ করতে পারবেন। ব্যবসায়ীরা জানান, করোনা সংক্রণ প্রতিরোধে মার্চ মাস থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় জেলার সব আবাসিক হোটেল-মোটেল, গেস্ট হাউস, পরিবহন ও পর্যটনকেন্দ্র। এতে কর্মহীন হয়ে পড়েন পর্যটনসংশ্লিষ্ট কয়েক হাজার মানুষ। ব্যবসায়ীসহ পর্যটন খাতে লোকসান হয়েছে প্রায় শত কোটি টাকা।

পর্যটন নগরী হিসেবে খ্যাত পার্বত্য জেলা বান্দরবানে ছোটবড় শতাধিক আবাসিক হোটেল, মোটেল ও গেস্ট হাউস রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছেন প্রায় ২ হাজার শ্রমিক। জেলায় পর্যটকদের জন্য রয়েছে ৩ শতাধিক চাঁদের গাড়ি। এসব পরিবহনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রয়েছেন ৫ শতাধিক শ্রমিক। লকডাউনের কারণে দীর্ঘ ৫ মাস তারা বেকার জীবনযাপন করেছেন। অনেকে জীবীকার তাগিদে অন্য পেশায় চলে গেছেন।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.