পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর

0
Want create site? Find Free WordPress Themes and plugins.

বাংলাদেশের আকাশে শনিবার পবিত্র মহররম মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে ১০ সেপ্টেম্বর দেশে পবিত্র আশুরা (১০ মহররম) পালিত হবে। শনিবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররমের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির প্রধান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শনিবার বাংলাদেশের আকাশে ১৪৪১ হিজরি সনের মহররম মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে রোববার থেকে পবিত্র মহররম মাস গণনা শুরু হবে। সে হিসাবে ১০ সেপ্টেম্বর দেশে পবিত্র আশুরা পালিত হবে।

৬১ হিজরিতে এদিনে হজরত ইমাম হোসাইন (রা.), তার পরিবার ও সহচরেরা ইয়াজিদের সৈন্যবাহিনীর হাতে কারবালায় নির্মমভাবে শহীদ হন। ইসলামের সুমহান আদর্শকে সমুন্নত রাখার জন্য তার আত্মত্যাগ ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে আছে। সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য ত্যাগের মহিমা মুসলিম উম্মাহর জন্য এক উজ্জ্বল ও অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। জুলুম-অবিচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো এবং অসত্য ও অন্যায় প্রতিরোধে হজরত হোসাইন (রা.)-এর এ ভূমিকায় মানব জীবনের জন্য শিক্ষণীয় অনেক কিছু রয়েছে।
তবে ইসলামের ইতিহাসে পবিত্র আশুরা আরও অসংখ্য তাৎপর্যময় ঘটনায় উজ্জ্বল হয়ে আছে। এ পৃথিবী সৃষ্টি, হজরত আইয়ুব (আ.)-এর কঠিন পীড়া থেকে মুক্তি, হজরত ঈসা (আ.)-এর আসমানে জীবিত অবস্থায় উঠে যাওয়াসহ অসংখ্য ঐতিহাসিক ঘটনায় মহররম মাসের ১০ তারিখ অবিস্মরণীয় ও মহিমান্বিত। পৃথিবীর মহাপ্রলয় বা কিয়ামত মহররমের ১০ তারিখে ঘটবে বলেও বিভিন্ন বর্ণনায় এসেছে। আর মহররম হচ্ছে হিজরি পঞ্জিকাবর্ষের প্রথম মাস। ইসলাম ধর্মের শেষ নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) মক্কার কুরাইশদের নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে মক্কা থেকে মদিনা চলে যান। তার এ জন্মভূমি ত্যাগের ঘটনাকে ‘হিজরত’ বলা হয়। এ ঐতিহাসিক তাৎপর্য বিবেচনায় হজরত ওমর (রা.)-এর শাসনামলে যখন মুসলমানদের জন্য স্বতন্ত্র পঞ্জিকা প্রণয়নের কথা ওঠে তখন সর্বসম্মতিক্রমে হিজরত থেকেই এ পঞ্জিকা গণনা শুরু করেন সংশ্লিষ্টরা।

Did you find apk for android? You can find new Free Android Games and apps.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.