মালিঙ্গার কাছ থেকে ইয়র্কার শিখিনি: বুমরাহ

0

লাসিথ মালিঙ্গার কাছ থেকে ক্রিকেট সংক্রান্ত বহু কিছু শিখেছেন ভারতের সিমার জাসপ্রিত বুমরাহ। তবে ইয়র্কার রপ্ত করতে কখনই শ্রীলংকা পেসারের দ্বারস্থ হননি বলে জানিয়েছেন এই পেসার।
আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে বর্তমানে একনম্বর বোলার জাসপ্রিত বুমরাহ। ক্রিকেট অনুরাগীদের বদ্ধমূল ধারণা, আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসে মালিঙ্গার সঙ্গে বহু বছর একইসঙ্গে খেলার ফলে ইয়র্কার আরও ক্ষুরধার হয়েছে বুমরাহর। তবে তাদের ভাবনা একেবারে ভুল বলে জানিয়ে দিয়েছেন এই পেসার।

ভারতের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমসকে বুমরাহ বলেন, অনেকে মনে করেন মালিঙ্গা আমাকে ইয়র্কার শিখিয়েছেন। কিন্তু সেটা সত্য নয়।মাঠে উনি আমাকে হাতে ধরে কিছুই শেখাননি। তবে আমি তার কাছ থেকে অনেক মানসিক পাঠ নিয়েছি। ২২ গজে কীভাবে রাগ সংবরণ করতে হয় তা জেনেছি তার কাছ থেকেই। কীভাবে ব্যাটসম্যানের জন্য পরিকল্পনা সাজাতে হয়, সেই সম্পর্কে শিক্ষাটা তার কাছেই পেয়েছি।

আপনার নিখুঁত ইয়র্কারের রহস্য কী- এমন প্রশ্নের জবাবে নিজের ছোটবেলার স্মৃতি রোমন্থন করেন বুমরাহ। বলেন, শৈশবে বাড়িতে সাধারণ ডেলিভারি প্র্যাকটিস করতাম। এ ধরনের বলের শব্দে মা রেগে গিয়ে আমার খেলা বন্ধ করে দিতেন। পরিপ্রেক্ষিতে আমি দেখি দেয়াল ও মেঝের সংযোগস্থলে বল ফেললে শব্দ কম হয়।
মায়ের বকাবকি থেকে রক্ষা পেতে বুমরাহর ছোটবেলার সেই অনুশীলনই আজ অস্ত্রে পরিণহ হয়েছে। বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের হাটুর কাঁপুনি ধরে তার গতিতে।

টেলিভিশন পর্দায় অনেকের বল দেখেও বোলিংয়ের বহু কৌশল রপ্ত করেছেন বুমরাহ। পাশাপাশি জাতীয় দলের বোলিং কোচ ভরত অরুণ, সতীর্থ ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ শামি, ভুবনেশ্বর কুমারের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছেন বলে জানান এই ডানহাতি পেসার। এছাড়া মুম্বাইয়ের মেন্টর শেন বন্ড, মালিঙ্গা ও মিচেল জনসনকেও বিভিন্ন ক্ষেত্রে শিক্ষক হিসেবে মানেন ভিন্ন অ্যাকশনধর্মী এই বোলার।

বুমরাহ বলেন, টিভিতে বিভিন্ন জনের বোলিং অ্যাকশন দেখে ক্রিকেটের অনেক কিছু রপ্ত করেছি আমি। এখনও বিভিন্ন ভিডিও এবং ফিডব্যাক দেখে নিজেকে প্রস্তুত করি। নিজেই নিজের পর্যালোচনা করি। কারণ জানি, মাঠে আমি একা। কেউ আমাকে সেখানে সাহায্য করতে আসবে না। তাই আমার মনে হয়, নিজেই নিজেকে শুধরে নেয়া উচিত।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.