সাদার্ন ইউনিভার্সিটির সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে বিদায় অনুষ্ঠান

0
Want create site? Find Free WordPress Themes and plugins.

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রকাশনা ম্যাগাজিন অ্যাংকর-২০১৯ এর মোড়ক উন্মোচন করছেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. নুরুল মোস্তফাসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা।
মো. সাইদুল ইসলাম চৌধুরী, সহকারী পরিচালক( উপাচার্য’র কার্যালয় ও জনসংযোগ)

সাদার্ন ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গ্রাজুয়েট শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্টিটিউট’র(আইইবি) অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। প্রো-ভিসি ও সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাদার্ন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. নুরুল মোস্তফা। আরও উপস্থিত ছিলেন উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর সরওয়ার জাহান, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উপদেষ্টা প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার মোজাম্মেল হক, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. শরীফুজ্জামান, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. ইসরাত জাহান, বিভিন্ন অনুষদের ডিন ও উপদেষ্টা, রেজিস্ট্রার, সাংবাদিক, আমন্ত্রিত অতিথি ও শিক্ষকবৃন্দসহ শিক্ষার্থীরা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. নুরুল মোস্তফা বলেন, ইউনিভার্সিটির কাজ হচ্ছে শিক্ষা ও গবেষণা তাই সাদার্ন গবেষণাধর্মী শিক্ষাকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। সাদার্ন এর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের গবেষণা প্রবন্ধ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন জার্নালে নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে যা ইতোমধ্যে বেশ প্রশংসা পেয়েছে এবং বিভিন্ন সেক্টরে কাজে লাগানো হচ্ছে। নিয়মিত আন্তর্জাতিক সম্মেলন করছে সাদার্ন। ইতোমধ্যে বিভিন্ন বিভাগের উদ্যোগে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে অনেকগুলো আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাদার্ন ইউনিভার্সিটির আটটি বিভাগ ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাংক ও ইউজিসির আইকিউএসি হেকেপ প্রজেক্টের পিয়ার রিভিউতে খুব প্রশংসীয় মার্ক অর্জন করেছে।
তিনি আরও বলেন, মনে রাখবে শুধু শিক্ষিত হলে হবে না নৈতিকতাকেও ধারণ করতে হবে। সত্যিকারের মানুষ হতে না পারলে কোন শিক্ষাই দেশ ও মানুষের কল্যাণে আসবে না। এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা দেশে বিদেশে নিজেদের ক্যারিয়ার গড়ে বাংলাদেশকে উজ্জ্বল করেছে। নিজেকে এমনভাবে প্রমাণ করতে হবে যাতে লক্ষ্যের শিখরে পৌঁছতে পার। সুশিক্ষার মাধ্যমে দেশের কল্যাণে কাজ করে যাবে এটাই প্রত্যাশা করছি।
প্রফেসর সরওয়ার জাহান বলেন, সুশৃংখল বিভাগ হিসেবে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ইতোমধ্যে পরিচিত লাভ করেছে, সমৃদ্ধ বিভাগগুলোর মধ্যে এই বিভাগটি অন্যতম। আইইবি’র র‌্যাংকিং এ বিভাগটির অবস্থান ষষ্ঠ। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ যোগ্যতাবলে আইইবি’র অ্যাক্রেডিটেশন পেয়েছে। উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে গুণগত মান অর্জন, অভিজ্ঞ শিক্ষকবৃন্দ, আপডেটেড সিলেবাস, মানসম্মত ল্যাব, লাইব্রেরি ও শ্রেণিকক্ষ পরিচালনার স্বীকৃতিস্বরূপ এই অর্জন। চট্টগ্রামে শহরের মধ্যে ১০ একর বিশাল জায়গা নিয়ে পরিবেশবান্ধব একমাত্র ইউনিভার্সিটি সাদার্ন। স্থায়ী ক্যাম্পাসের বিশালতায় প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশ নিজেদের বেশ সুন্দরভাবে মানিয়ে নিয়েছে এ বিভাগটি। আমার বিশ্বাস এ বিভাগের শিক্ষার্থীরা যোগ্যতা দিয়ে দেশে বিদেশে সাদার্নকে প্রশংসিত করবে।
প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার মোজাম্মেল হক বলেন, জীবনে ইঞ্জিনিয়ার হতে পারলে কি না সেটা বড় কথা নয় বরং ভালো মানুষ হয়েছো কি না সেটা চিন্তা করবে। আমাদের সমাজে এখন বেশি প্রয়োজন ভালো মানুষের কারণ সাম্প্রতিক ঘটনাগুলো মেধাবীদের কলংকিত করেছে। শিক্ষক মানে বাবা আর প্রত্যেক বাবা-ই চাই তার সন্তান সফলতায় বাবাকে ছাড়িয়ে যাক। শিক্ষার্থী যখন সর্বোচ্চ আসনে অধিষ্ঠিত হয় এর চেয়ে খুশী শিক্ষকদের জীবনে আর কিছু হতে পারে না।
পরে আমন্ত্রিত অতিথিরা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রকাশনা ম্যাগাজিন অ্যাংকর-২০১৯ এর মোড়ক উন্মোচন করেন। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র মাহাদী হাসানের অকাল মৃত্যুতে উপস্থিত সকলে দাঁিড়য়ে শোক প্রকাশ ও মোনাজাতে মাগফেরাত কামনা করেন । অনুষ্ঠানের সভাপতি প্রো-ভিসি প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফ উপস্থিত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও প্রীাত ভোজের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকতার সমাপ্তি হয়।

Did you find apk for android? You can find new Free Android Games and apps.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.