সীমান্তে জড়ো হচ্ছেন হাজার হাজার কাশ্মীরি

0

ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরিদের প্রতি সংহতি জানানোর উদ্দেশে আজাদ কাশ্মীরের মুজাফফরাবাদে জড়ো হয়েছেন হাজার হাজার জনতা। স্বাধীনতার ডাক দিয়ে জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্ট শুক্রবার থেকে এ বিক্ষোভের আয়োজন করে।
শুক্রবার মিছিলকারীরা মুজাফফরাবাদে বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেন এবং শনিবার সকাল ১০টার দিকে চকোঠি সেক্টরের দিকে যাত্রা শুরু করেন।

জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের মুখপাত্র ডনকে বলেন, চকোঠি থেকে আমরা যুদ্ধবিরতি সীমান্ত রেখা পেরিয়ে শ্রীনগর যাব।
শুক্রবার আজাদ কাশ্মীর থেকে মুজাফফরবাদের উদ্দেশে হাজার মোটরসাইকেল নিয়ে কাশ্মীরিরা মিছিল বের করে। শনিবার সীমান্ত রেখার দিকে পদযাত্রা শুরু করেন তারা। ভারতীয় নির্যাতনের ব্যাপারে বিশ্ব সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই এমন প্রতিবাদের আয়োজন করা হয়েছে বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।

স্বাধীনতার ডাক দিয়ে আজাদী মার্চে তরুণদের পাশাপাশি যুবক, বৃদ্ধ ও নারীরাও অংশ নিয়েছেন। সীমান্ত রেখার কাছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বাধার মুখে পড়তে পারেন তারা। ইতিমধ্যে সীমান্তে সৈন্য বাড়ানো হয়েছে।
শুক্রবার মোজাফফরাবাদ প্রশাসন ও পুলিশ প্রেসক্লাবে সর্ব সাধারনদের সচেতন করতে আসেন, যাতে জনগণ নিজেদের নিরাপদ রাখতে সীমান্ত রেখা এড়িয়ে চলেন।পাকিস্তানের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মার্চে অংশগ্রহণকারীদের নিয়ন্ত্রণ রেখায় যেতে বাধা দিতে একটি কৌশল তৈরি করেছে।

মুজাফফারাবাদের কমিশনার বলেছেন, বেসামরিক নাগরিকদের দিকে ভারত সেনাবাহিনীর গুলিবর্ষণ ও গোলাবর্ষণ করার আশঙ্কা রয়েছে, এতে নাগরিকদের মারাত্মক হতাহতের ঘটনা ঘটতে পারে।
এদিকে আজাদ কাশ্মীর থেকে সীমান্ত অতিক্রম করে ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরে প্রবেশ করে তাদের সমর্থন বা সহযোগিতা না করতে পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

শনিবার এক টুইট বার্তায় ইমরান খান বলেন, আমি দুই মাস ধরে অমানিবকভাবে অবরুদ্ধ ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরিদের দেখে তাদের সমকক্ষসঙ্গী আজাদ কাশ্মীদের যন্ত্রণা বুঝতে পারছি। কিন্তু কেউ যদি আজাদ কাশ্মীরের সীমান্ত অতিক্রম করে দুদর্শাগ্রস্থ ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে মানবিক সহযোগিতা বা সমর্থন দিতে যান, তাহলে ভারত তাকে নিয়ে খেলবে।
এর ব্যাখ্যা দিয়ে ইমরান খান বলেন, ভারত দৃষ্টিভঙ্গি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য তাদেরকে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত ইসলামিক জঙ্গি তকমা লাগিয়ে দেয়ার চেষ্টা করবে।
তিনি সতর্ক করে বলেন, এতে ভারত জম্মু-কাশ্মীরিদের ওপর সহিংসতা নিপীড়ন ও সীমান্তে আক্রমণ বাড়িয়ে দেবে।

সূত্র: এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.